Profile

Saptarshi Chakraborty
First Name
Saptarshi
Last Name
Chakraborty
Bio
Saptarshi is a self-taught multi-discipline performer with major focus on fine art Photography. He brings his legacy of aesthetic experience from painting, music, literature and theatrics. He is working on Photography as visual art form for over a decade. He specializes both in technical and aesthetic aspects of Photography. Saptarshi worked as Human Resource Manager in a reputed multinational for 12 years before he stepped into Photography mentoring as full time profession in 2016. He has worked as HOD of Film & Photography division at Indian Institute of Digital Art and Animation. He also works as offcial mentor for Tamron, a leading lens manufacturer. He loves to explore new horizons and lifestyles which is a keynote to his photography works as well.
3 months ago no Comment

What happened after is a wonder!
Before lunchtime, he sold 56 copies of the proposed portfolio which even did not exist. He handed over a cheque of 500 dollars to the young guy and said – “Print 100 copies. Add 10 artists’ copy as well.”
The boy, only 24 years old then, was bewildered.

3 months ago no Comment

First ROR-CIS Workshop 3rd February 2019 Canon Image Square, Salt Lake Good learning is always encouraging. For both teacher and

6 months ago no Comment

সিকদারবাগানের সেই কেল্লার মত বাড়িটার পাশে ওইরকম এক শ্যাওলারঙের বারান্দা আছে। হাঁটতে হাঁটতে সেখানে খানিক বসেন মধুকর। ওই বারান্দাটায় বসলে নিজেকে কেমন জমিদার বোধ হয়। পাশ দিয়ে মানিপ্ল্যান্টের ঝাড় নেমেছে। আলো পড়ে এলে ছায়াগুলো কেমন হৃদয়ের মত ঝুলে থাকে।

7 months ago no Comment

শিউলির চোখ থেকে গড়িয়ে পড়লো একফোঁটা কেন্দ্রীভুত সময়। গড়িয়ে পড়লো ঘাসের ডগায়। ক্ষণিকের জন্য পৃথিবীর সমস্ত রঙ মেখে নিয়ে হারিয়ে গেল নিঃশব্দে। ঠিক তখনই আকাশ ঘড়ি দেখলো। গোধুলিতে থেমে আছে রোদ। ফেলে দেওয়া কলার খোসা থেকে বোঁ বোঁ শব্দে উড়ে গেলো মাছিগুলো।

7 months ago no Comment

টিউবে বসে একটা দীর্ঘশ্বাস ছাড়লো কণাদ। ছাড়লো না….বলা ভালো একটা দীর্ঘশ্বাস পড়লো। কণাদের নিয়ন্ত্রণ ছিলো না।
আসলে একটু অপেক্ষা করতে চাইছিলো কণাদ। মাঝে মাঝে একটু অপেক্ষা করতে মন চায়। ভালোলাগে। স্টেশানে পৌঁছনো মাত্রই টিউবটা এসে দাঁড়ালো। স্টেশানে একটু বসতে ইচ্ছে করছিলো। কিন্তু ট্রান্সমিট স্টেশানে ডিলে বা ইনকগ্নিটো কোনটাই অ্যালাউড নয়!

7 months ago no Comment

জীবনের গল্প এক জিনিস আর গল্পের মত জীবন আরেক। দুটোই সত্য বটে তবে স্বাদু ফারাক কিছু হয়তো থাকে। হয়তো বা থাকে না। সদানন্দ ভাবলেন ব্যাপারটা প্রতক্ষ্য করে দেখবেন।

7 months ago no Comment

তারপর আস্তে আস্তে চোখে পড়তে লাগলো আরেকটা কোলকাতা। যা গ্রামে বড়ো হওয়া একজনের কাছে বড় অশ্লীল মনে হল। প্রথম প্রথম মাত্রাটা কিছু সহনীয় ছিলো। যা দেখছিলাম, তা বৃহৎ হওয়ার অবশ্যম্ভাবী কুফল বলে মেনে নিচ্ছিলাম হয়তো। হয়তো ভাবছিলাম শহরটাকে ত চিনি না ভালো করে এখনো। এ শহর রত্নসম্ভবা। এর কাছে প্রচুর পাওয়ার আছে। অনেকটা মা-এর মত। তবু চোখ আটকে যাচ্ছিলো কিছু দৃশ্যে। যেগুলো ইঙ্গিত করছিলো কোথাও একটা গভীর ক্ষত আছে এই শহরের। একটা নীরব অভিযোগ আছে। হয়তো অভিমান। চিনতে পারছিলাম না।

12 months ago no Comment

কপালের ওপর দুশ্চিন্তার স্বেদবিন্দুর মতো মরা বিকেলের রোদ এসে পড়েছে গ্লাসের কানায়। পর্দার একফালি ফাঁক দিয়ে একসার আসবাবপত্রকে আলগোছে টপকে এককোনায় টেবিলের ওপর অপাংক্তেয় গ্লাসখানাই জিতে গেলো শেষে। নিরঙ্কুশ ঘটনা কিছু নেই জীবনে। সমস্তই সমাপতন বুঝি। ফিরে যাওয়া ঢেউয়ের মতো আস্তে আস্তে আলো সরে যাচ্ছে ঘর থেকে।

শুক্তির মনে হলো শুধু এখনই বলা যায়। ঠিক এই মুহুর্তেই।

1 year ago no Comment

তখন নিখিলেশ ভাবলেন এবার পাখি পুষবেন। অনেক কথা হল। কাজও হল অনেক। বাগানের সমস্ত গাছ বাঁচিয়ে রাখা যায় না যখন তখন ফলের কথা ভেবে লাভ কি। তখন নিখিলেশ ভাবলেন এবার পাখি পোষা যাক।

একটা ডিমের মত গোল লোক তাকে একবার একটা আপেলের চারা দিয়েছিল। বাগানে লাগানোর জন্য। তা সেই আপেল চারার ইস্তেহার শুনে পাড়ার উকিল বললেন সমতলে আপেল গাছ হতে পারে, আপেল কিন্তু পাহাড়েই হবে। কথাটা নিখিলেশের মাথায় ঢোকেনি। রান্নাঘরের পাশে আপেল গাছ লাগালে ফল হবে উত্তর পাহাড়ে?